বৃহঃস্পতিবার ১৯শে জুলাই ২০১৮ সকাল ০৮:০৫:০২

Print Friendly and PDF

নিরাপত্তার স্বার্থেই খালেদা জিয়ার মামলা স্থানান্তর: আইনমন্ত্রী


আইনমন্ত্রী ফাইল ছবি

প্রকাশিত : সোমবার ৮ই জানুয়ারী ২০১৮ বিকাল ০৫:৪৮:৫৬, আপডেট : বৃহঃস্পতিবার ১৯শে জুলাই ২০১৮ সকাল ০৮:০৫:০২,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৪৫ বার

ফাইল ছবি

নিরাপত্তার স্বার্থে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মামলাগুলো ঢাকার বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে স্থানান্তর করা হয়েছে। আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। আজ দুপুরে সচিবালয়ে আইন মন্ত্রণালয়ে লন্ডনের টাওয়ার হ্যামলেটের স্পিকার সাবিনা আক্তারের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, নিরাপত্তার স্বার্থেই বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া মামলাগুলো বকশীবাজারে আলিয়া মাদ্রাসার মাঠ প্রাঙ্গণে স্থাপিত আদালতে স্থানান্তর করা হয়েছে। এতে কোনো রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই। খালেদা জিয়া আদালতে হাজিরা দেয়ার সময় অনেক লোকজন থাকে। সঙ্গে তার ব্যক্তিগত নিরাপত্তারক্ষীও থাকে। এতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দায়িত্ব পালনে বিঘ্ন সৃষ্টি হয়। এসব বিষয় বিবেচনা করে নিরাপত্তার স্বার্থে ওই আদালতে মামলাগুলো স্থানান্তর করা হয়েছে।

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা আরও ১৪টি মামলা সোমবার বকশীবাজার আলিয়া মাদ্রাসাসংলগ্ন ভবনে স্থাপিত অস্থায়ী আদালতে স্থানান্তর করে প্রজ্ঞাপন জারি করে আইন মন্ত্রণালয়। যেখানে আগে থেকেই তার বিরুদ্ধে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট সংক্রান্ত দু’টি দুর্নীতির মামলার বিচার চলছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সংশ্লিষ্ট আদালতের বিচারকই অস্থায়ী আদালতের বিশেষ এজলাসে বসে বিচারকাজ পরিচালনা করবেন। যে ১৪টি মামলা স্থানান্তর করা হচ্ছে তার মধ্যে ঢাকা মহানগর দায়রা আদালতে ৯টি, বিশেষ জজ আদালতে ৩টি ও ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে ২টি মামলা বিচারাধীন রয়েছে।

বর্তমানে অস্থায়ী আদালতে যে দু’টি মামলা চলছে তার মধ্যে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন চলছে। যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হলেই মামলার রায় ঘোষণার দিন ধার্য করা হবে। বাসস।