সোমবার ২১শে জানুয়ারী ২০১৯ রাত ১১:৪৫:২৯

Print Friendly and PDF

এসি ছাড়াই ঘর থাকবে ঠাণ্ডা


রকমারি ডেস্ক:

প্রকাশিত : মঙ্গলবার ২৪শে এপ্রিল ২০১৮ বিকাল ০৩:৪১:০৩, আপডেট : সোমবার ২১শে জানুয়ারী ২০১৯ রাত ১১:৪৫:২৯,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৫৯৫ বার

ঘরে-বাইরে প্রচণ্ড গরম।গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন এখন বিপর্যস্ত। বাইরে সূর্যের প্রখর তাপে কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরে ঠাণ্ডা প্রশান্তিময় ঘর সবার কাম্য। তাছাড়া প্রচণ্ড তাপপ্রবাহের কারণে ঘেমে ভিজে একাকার হয়ে মানুষ ঘরে ফিরে আসে একটু শান্তির আশায়। কিন্তু ঘরটাও যদি হয়ে উঠে গরম ও অস্বস্তিকর।

আপনি জানেন কি এই গরমে ঘর ঠাণ্ডা করার আছে কিছু উপায়। বিশেষ করে যাদের ঘরে কন্ডিশন লাগানো সম্ভব না, তারা প্রাকৃতিক উপায়ে সহজেই ঘর ঠাণ্ডা রাখতে পারেন।

আসুন জেনে নেই কীভাবে এসি ছাড়াই থাকবে ঘর ঠাণ্ডা।

সূর্যের প্রখর তাপ
দুপুরের সূর্যের প্রখর তাপ ঘরে আসতে না পারে সে জন্য দক্ষিণ ও পশ্চিম পাশের জানালা বা যেগুলোতে সরাসরি সূর্যের আলো পড়ে সেসব জানালার পর্দা বা উইন্ডো ব্লাইন্ড টেনে রাখুন। এছাড়া জানালাও বন্ধ রাখুন।

বাতাস চলাচল
আপনার ঘরের যে পাশে দিয়ে বাতাস বেশি আসে সেই পাশের দরজা-জানালা খুলে রাখুন। এর ফলে সূর্যাস্তের পরেও আপনার ঘরে বাতাস আসা-যাওয়া করবে। আর ঘর থাকবে ঠাণ্ডা।

গাছপালা
আপনার ঘরকে শীতল রাখার জন্য ঘরের চারপাশে গাছপালা লাগান। ছায়া দিতে পারে এমন গাছ পূর্ব-পশ্চিমে লাগালে আপনার গৃহে সূর্যের তাপ আলোকে প্রতিহত করবে। ঘরের চারপাশে ঘাস ও ঘাস জাতীয় গাছ থাকলে ঘরকে শীতল রাখে।

সাদা লিনেন চাদর
বিছানার চাদর হিসেবে সাদা লিনেন কাপড় ব্যবহার করুন। তাছাড়া হালকা রঙ ঘরে শীতল প্রভাব ফেলে। সাদা বা হালকা রঙের সুতির চাদর বিছানা ঠাণ্ডা থাকবে। নিয়মিত বদলান বেডকভার ও বেডশিট। এতে ঠাণ্ডা শুধু নয়, ফ্রেশও লাগবে।

কম্পিউটার ও ল্যাপটপ বন্ধ রাখুন
কাজ না থাকলে কম্পিউটার ও ল্যাপটপ বন্ধ করে রাখুন। কম্পিউটার ও ল্যাপটপ প্রচুর তাপ উৎপন্ন করে যা ঘরকে গরম করে ফেলে। তাই ঘর ঠাণ্ডা রাখতে চাইলে অপ্রয়োজনে এসব প্রযুক্তিপণ্য চালিয়ে না রাখাই ভালো।

বরফের টুকরো
এক বোল বরফের টুকরো নিয়ে ফ্যানের নিচে রেখে ফ্যান চালু করুন। কিছুক্ষণ পর বরফগুলো যখন গলতে শুরু করবে তখন বাতাস এই শীতল পানি শোষণ করবে ও ছড়িয়ে দেবে। এর ফলে আপনার ঘর ঠাণ্ডা হবে।

টেবিল ফ্যান জানালার পাশে
রাতের বেলা টেবিল বা পোর্টেবল ফ্যানটি জানালার কাছে নিয়ে চালিয়ে দিন। এটি বাইরের ঠাণ্ডা হাওয়া ভেতরে নিয়ে আসবে এবং ঘরের অসহনীয় গরম দূর হবে।

রান্নার পর চুলা বন্ধ
রান্নার পর অবশ্যই চুলা বন্ধ রাখুন। কারণ চুলা জ্বালানো থাকলে এমনিতে ঘর গরম থাকে। এ বিষয়টি শীতের দিনে ভালো বোঝা যায়।

সূর্য ডোবার পর
সূর্য ডোবার পর ঘরের জানালা খুলে দিন। এছাড়া দুপুরে ও রাতে শোয়ার আগে ঘর বরফ ঠাণ্ডা পানি দিয়ে মুছতে পারেন, প্রশান্তি আসবে।