শুক্রবার ১৯শে অক্টোবর ২০১৮ সকাল ০৬:১৪:৫৯

Print Friendly and PDF

নাজমুল হুদার আবেদন খারিজ, আত্মসমর্পণ করতে হবে


ডেস্ক রিপোর্ট:

প্রকাশিত : রবিবার ৭ই জানুয়ারী ২০১৮ সকাল ১১:০৫:৪২, আপডেট : শুক্রবার ১৯শে অক্টোবর ২০১৮ সকাল ০৬:১৪:৫৯,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৬৪ বার

ফাইল ছবি

নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ ছাড়াই হাইকোর্টের সাজার বিরুদ্ধে আপিল শুনানির অনুমতির চেয়ে আনা সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার আবেদন খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ।

ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞার নেতৃত্বে পাঁচ বিচারপতি সমন্বয়ে আপিল বিভাগ ‘উত্থাপিত হয়নি মর্মে’ নাজমুল হুদার আবেদন খারিজ করে রবিবার এ আদেশ দেয়।

দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান সাংবাদিকদের জানান, এখন ঘুষ নেয়ার মামলায় নাজমুল হুদাকে ৪৫ দিনের মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমপর্ণ করতে হবে। এর আগে গত ২ জানুয়ারি নাজমুল হুদার আবেদন বিষয়ে আদেশের জন্য আজ দিন ধার্য করে দেয় আদালত।

আকতার হোসেন লিমিটেড নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মীর জাহির হোসেনের কাছ থেকে ২ কোটি ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নেয়ার অভিযোগে ২০০৭ সালের ২১ মার্চ দুদক নাজমুল হুদা দম্পতির বিরুদ্ধে ধানমন্ডি থানায় মামলা করে। একই বছরের ২৭ আগস্ট এক রায়ে নাজমুল হুদাকে সাত বছর ও সিগমা হুদাকে তিন বছরের কারাদন্ড দিয়ে রায় দেয় বিচারিক আদালত।

এ রায়ের বিরুদ্ধে তারা হাইকোর্টে আপিল করেন। এ আপিলের উপর শুনানি শেষে ২০১১ সালের ২০ মার্চ এক রায়ে হাইকোর্ট তাদের খালাস দেন। হাইকোর্টের এ রায়ের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আপিল করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এরপর আপিল বিভাগ ২০১৪ সালের ১ ডিসেম্বর হাইকোর্টের রায় বাতিল করেন এবং পুনরায় হাইকোর্টে বিচার করার নির্দেশ দেন। এরপর মামলাটির পুনরায় শুনানি শেষে গত ৮ নভেম্বর হাইকোর্ট রায় দেন।

রায়ে নাজমুল হুদাকে চার বছর কারাদন্ড এবং সিগমা হুদাকে তার কারাভোগকালীন সময়কে সাজা হিসেবে ঘোষণা করেন। আদালত নাজমুল হুদাকে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেয়।

এ রায়ের কপি পাওয়ার ৪৫ দিনের মধ্যে তাকে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। কিন্তু নাজমুল হুদা আত্মসমর্পণ না করে আপিল বিভাগের রায়ের বিরুদ্ধে রিট আবেদন করেন। এ রিট আবেদন গত ১০ ডিসেম্বর খারিজ করে দেয় হাইকোর্ট। এরপর তিনি আত্মসমর্পণ ছাড়াই আপিল করার অনুমতি চেয়ে আবেদন করেন। রবিবার সেই আবেদনও খারিজ করে দিলেন আপিল বিভাগ। -বাসস।