বুধবার ২৪শে জানুয়ারী ২০১৮ দুপুর ০১:২১:২৫

Print Friendly and PDF

২০ বছরের বিরতি শেষে দ্বিতীয় উপন্যাস নিয়ে ফিরছেন অরুন্ধতী রায়


সাহিত্য ডেস্ক:

প্রকাশিত : মঙ্গলবার ৪ঠা অক্টোবর ২০১৬ সন্ধ্যা ০৬:৩১:৫৩, আপডেট : বুধবার ২৪শে জানুয়ারী ২০১৮ দুপুর ০১:২১:২৫,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫৫২ বার

সময়নিউজ ডট নেট:
ঢাকা: একজন ঔপন্যাসিক এবং রাজনৈতিক আন্দোলনকারী হিসেবে পরিচিত ভারতীয় লেখিকা অরুন্ধতী রায়। ১৯৯৭ সালে তাঁর প্রথম উপন্যাস ‘দ্য গড অব স্মল থিংস’ প্রকাশিত হওয়ার পরই আলোচনায় চলে এসেছিলেন লেখিকা।

সে বছর সম্মানজনক বুকার পুরস্কার জিতেছিল তাঁর উপন্যাস। এরপর দীর্ঘ সময় পর ২০ বছরের বিরতি শেষে অরুন্ধতী রায় ফিরছেন তাঁর দ্বিতীয় উপন্যাস ‘দ্য মিনিস্ট্রি অব আটমোস্ট হ্যাপিনেস’ নিয়ে। আগামী বছর উপন্যাসটি প্রকাশিত হবে বলে গতকাল সোমবার অরুন্ধতী নিজেই ঘোষণা দেন। ব্রিটিশ দৈনিক দ্য গার্ডিয়ানের সূত্রমতে উপন্যাসটি প্রকাশ করবে হ্যামিশ হ্যামিল্টন ইউকে ও পেঙ্গুইন ইন্ডিয়া।

১৯৯২ সালে নিজের প্রথম উপন্যাস ‘দ্য গড অব স্মল থিংস’ লেখা শুরু করেন তিনি। উপন্যাসটি লেখা শেষ হয় ১৯৯৬ সালে। ন্যায়-সমতা আর মুক্ত পৃথিবীর পক্ষে এক বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর অরুন্ধতী রায়ের প্রথম উপন্যাস ‘গড অফ স্মল থিংস’ প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৯৭ সালে। এর ২০ বছর পর প্রকাশিত হতে চলেছে তার দ্বিতীয় উপন্যাস। নতুন উপন্যাস প্রকাশ প্রসঙ্গে অরুন্ধতী বলেন, ‘আমি খুবই খুশি যে ‘দ্য মিনিস্ট্রি অব আটমোস্ট হ্যাপিনেস’-এর পাগল আত্মারা পৃথিবীর মুখ দেখার সুযোগ খুঁজে পেয়েছে। এবং আমি একজন প্রকাশক খুঁজে পেয়েছি।’

১৯৬১ সালের ২৪ নভেম্বর ভারতের মেঘালয় রাজ্যের শিলংয়ে জন্ম অরুন্ধতী রায়ের। চলচ্চিত্র ও টিভি সিরিয়ালের চিত্রনাট্য লেখার মাধ্যমে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। লেখালেখির পাশাপাশি আন্তর্জাতিক রাজনীতি, মানবাধিকার ও পরিবেশ রক্ষার বিষয়ে অরুন্ধতী ছিলেন সচেতন। বিশেষ করে ইরাক ও আফগানিস্তানে মার্কিন আগ্রাসনের বিরুদ্ধে সোচ্চার ছিলেন তিনি। গহিন জঙ্গলে গিয়ে থেকেছেন ভারতের মাওবাদী গেরিলাদের সঙ্গে, তাদের হয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন আগ্রাসনের বিরুদ্ধে। পেয়েছেন ‘রাষ্ট্রোদ্রাহিতা’র খেতাব। ১৯৮৮ সালে ‘ইন হুইচ অ্যানি গিভস ইট দোজ ওয়ানস’ ছবির চিত্রনাট্যের জন্য ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্রে পুরস্কারে সেরা চিত্রনাট্যকারের পুরস্কার পান অরুন্ধতী।

অরুন্ধতীর সাহিত্য-বিষয়ক এজেন্ট ডেভড গুইউইন নতুন উপন্যাস সম্পর্কে বলেন, ‘কেবল অরুন্ধতীর পক্ষেই এমন উপন্যাস লেখা সম্ভব, দারুণভাবে মৌলিক, যা লিখতে ২০ বছর সময় লেগেছে। এবং এই দীর্ঘ অপেক্ষা ভালো কিছুর জন্যই।’ হ্যামিশ হ্যামিল্টনের পাবলিশিং ডিরেক্টর সিম প্রোসের নতুন বইটি সম্পর্কে বলেন, ‘লেখা অসাধারণ এবং চরিত্রগুলোও। সতেজ, আনন্দে পরিপূর্ণ এবং উদার। অক্ষরগুলো যেন জীবন্ত হয়ে উঠেছে বইয়ের পাতায়। এই উপন্যাস প্রকাশ করা একই সঙ্গে সম্মানের ও আনন্দের। বিভিন্নভাবে এটি একটি অসাধারণ বই, সাম্প্রতিক সময়ে আমাদের পড়া সেরা।’

সামনের বছর ২০১৭ সালের জুনে প্রকাশিত হবে বুকারজয়ী এই লেখকের নতুন উপন্যাস ‘দ্য মিনিস্ট্রি অফ আটমোস্ট হ্যাপিনেস’।

সময়নিউজ/এসবি