বৃহঃস্পতিবার ১৮ই অক্টোবর ২০১৮ দুপুর ০১:১৬:০২

Print Friendly and PDF

ডর্টমুন্ডের ট্রায়ালে নামার আগে ‘নার্ভাস’ বোল্ট!


ক্রীড়া ডেস্ক:

প্রকাশিত : মঙ্গলবার ৯ই জানুয়ারী ২০১৮ ভোর ০৪:১২:৪৯, আপডেট : বৃহঃস্পতিবার ১৮ই অক্টোবর ২০১৮ দুপুর ০১:১৬:০২,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৮১ বার

ছবি সংগ্রহীত

স্প্রিন্টের স্বপ্ন পুরুষ! এককথায় উসাইন বোল্টকে এছাড়া আর কীভাবেই বা অভিহিত করা যেতে পারে? কিন্তু অ্যাথলেটিক্স ছাড়া আরও একটা খেলাও যে এই জ্যামাইকান স্প্রিন্টারের মনে বরাবর ঢেউ তুলে এসেছে। কোন খেলা? না, এটা কোনো প্রশ্নই হল না।

বোল্ট অনুরাগীরা ভালো করেই জানেন খেলাটা ফুটবল এবং ফুটবল মানেই তার কাছে ম্যানইউ। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগের এ ক্লাবটির প্রতি বোল্ট চিরকালই দুর্বল। গত আগস্টে লন্ডনের বিশ্ব আসরেই শেষবার ট্র্যাকের লড়াইয়ে পা পড়েছিল বোল্টের।

অ্যাথলেটিক্স থেকে অবসর নেয়ার পর বোল্ট এবার পুরোপুরিই ফুটবলে মনোনিবেশ করতে চান। আর সেই লক্ষ্যেই জার্মান ক্লাব বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের ট্রায়ালে নামতে চলেছেন আটটি অলিম্পিক সোনাজয়ী কিংবদন্তি স্প্রিন্টার।

৩২ বছর বয়সে পেশাদার ফুটবলার হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে চাওয়ার নেপথ্য কারণ কী? সেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের জার্সি গায়ে তোলা! ডর্টমুন্ডের ট্রায়ালে সফল হতে পারলে ‘লাইটনিং বোল্ট’ স্বপ্নপূরণের জন্য নিজেকে উজাড় করে দেবেনই।

তেমনই তো জানালেন ব্রিটিশ দৈনিককে দেয়া সাক্ষাৎকারে, ‘আগামী মার্চে ডর্টমুন্ডের হয়ে ট্রায়ালে নামতে চলেছি। আমার নতুন ক্যারিয়ার কোন খাতে বইবে, তারপরই স্পষ্ট হবে। যদি ট্রায়ালে দেখে ওরা বলে, আমি পারব, তাহলে পুরোপুরি অনুশীলনে মন দেব। এমনিতে স্নায়ুচাপে ভুগি না। তবে এবার বেশ নার্ভাস লাগছে। আসলে আমার কাছে এটা তো নতুন একটা অভিজ্ঞতা হতে চলেছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘স্প্রিন্টের ট্র্যাক নয়, ফুটবল মাঠ। অবশ্য স্প্রিন্টার হিসেবে ক্যারিয়ার শুরুর সময়ও কিছুটা স্নায়ুচাপ ছিল। পরে অভ্যস্ত হয়ে পড়েছিলাম। আমার সবচেয়ে বড় স্বপ্ন ম্যানইউয়ের হয়ে ফুটবল খেলা। ডর্টমুন্ড যদি ট্রায়ালে দেখে আমাকে পছন্দ করে তাহলে নিজেকে উজাড় করে দেব। মাঠে নেমে কঠোর অনুশীলন করব।’ ওয়েবসাইট।