মঙ্গলবার ২৩শে অক্টোবর ২০১৮ দুপুর ০১:২৮:১২

Print Friendly and PDF

চলছে বই উৎসব


নিজস্ব প্রতিবেদক:

প্রকাশিত : সোমবার ১লা জানুয়ারী ২০১৮ বিকাল ০৩:২৮:৫২, আপডেট : মঙ্গলবার ২৩শে অক্টোবর ২০১৮ দুপুর ০১:২৮:১২,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪৭৪ বার

বছরের প্রথম সকালে নতুন বই পেল শিক্ষার্থীরা। কুষ্টিয়া জিলা স্কুলে আয়োজিত অনুষ্ঠানে আশপাশের কয়েকটি স্কুলের শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেওয়া হয়।

নতুন বছরের শুরুর দিনেই সারা দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শুরু হয়েছে পাঠ্যপুস্তক উৎসব। শিক্ষার্থীদের হাতে বিনা মূল্যে নতুন বই তুলে দিয়ে এ উৎসব পালন করা হচ্ছে।

আজ সোমবার রাজধানীতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আজিমপুর সরকারি স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে পৃথকভাবে এ উৎসবের আয়োজন করা হয়।

সকাল ১০টার পর আজিমপুর সরকারি স্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। শুরুতে জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। উৎসবে অংশ নেয় রাজধানী বিভিন্ন স্কুল ও মাদ্রাসার হাজারো শিক্ষার্থী। আজ থেকে সারা দেশে ৪ কোটি ৩৭ লাখ ছয় হাজার ৮৯৫ জন শিক্ষার্থীর জন্য মোট ৩৫ কোটি ৪২ লাখ ৯০ হাজার ১৬২টি বই বিনা মূল্যের দেওয়া হচ্ছে।

বিভিন্ন রঙের বই হাতে নিয়ে আনন্দে মেতে ওঠে শিক্ষার্থীরা। উৎসবে যোগ দিতে এসেছিল রাজধানীর বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আব্দুর রউফ পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র লাশিন হাসান। নতুন বই পেয়ে আনন্দ প্রকাশ করছিল। প্রথম আলোকে বলে, ‘এক্সসাইটেড লাগছে।’

আজিমপুর সরকারি স্কুল অ্যান্ড কলেজে চতুর্থ শ্রেণিতে ওঠার অপেক্ষায় থাকা হাবিবা আক্তার বলে ওঠে, ‘খুব ভালো লাগছে।’

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেন, বইয়ে ছোটখাটো ত্রুটি থাকতে পারে। তবে সব জায়গায় বই চলে গেছে। সব শিক্ষার্থী বই পাচ্ছে। এবার মাধ্যমিকের ১২টি বিষয়ের বই সুখপাঠ্য করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব বই সুখপাঠ্য করা হবে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদ্রাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর, জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের চেয়ারম্যান নারায়ণ চন্দ্র সাহা, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এস এম ওয়াহিদউজ্জামান, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মাহাবুবুর রহমান, কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাস, বাংলাদেশ মুদ্রণ শিল্প সমিতির সভাপতি তোফায়েল আহমেদ প্রমুখ।