সোমবার ২৮শে মে ২০১৮ সকাল ০৭:২৬:২১

Print Friendly and PDF

গ্রেপ্তার মোতালেব ও নাসির সাময়িক বরখাস্ত হচ্ছেন


নিজস্ব প্রতিবেদক:

প্রকাশিত : মঙ্গলবার ২৩শে জানুয়ারী ২০১৮ বিকাল ০৪:০৩:৫০, আপডেট : সোমবার ২৮শে মে ২০১৮ সকাল ০৭:২৬:২১,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ২১১ বার

মোতালেব হোসেন ও নাসিরউদ্দিন।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা (পিও) মো. মোতালেব হোসেন এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উচ্চমান সহকারী নাসিরউদ্দিন সাময়িক বরখাস্ত হচ্ছেন। আজ মঙ্গলবার কর্মকর্তারা এ কথা জানান।

ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে মোতালেব হোসেন ও নাসিরউদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি)। তাঁরা গ্রেপ্তার আছেন।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. সোহরাব হোসাইন জানান, গ্রেপ্তার হওয়া দুই কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হচ্ছে।

মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব বলেন, পিও মোতালেব হোসেনকে মন্ত্রণালয় থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হবে। আর নাসিরউদ্দিনকে প্রেষণ-প্রত্যাহার করে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরে সাময়িক বরখাস্তের জন্য বলা হচ্ছে।

নাসিরউদ্দিন মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মচারী ছিলেন। কিন্তু তিনি প্রেষণে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে কাজ করতেন।

ঘুষ লেনদেনের অভিযোগে মোতালেব হোসেন, নাসিরউদ্দিন ও লেকহেড স্কুলের পরিচালক খালেক হাসান মতিনের বিরুদ্ধে গতকাল সোমবার রাতে বনানী থানায় মামলা করেন ডিবির উপপরিদর্শক (এসআই) মনিরুল ইসলাম মৃধা।

গত রোববার রাতে ১ লাখ ৩০ হাজার টাকাসহ নাসিরউদ্দিনকে গুলশান এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। মোতালেবকে একই সময়ে বছিলা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। ওই দিন রাতে ঢাকা মহানগর পুলিশের জনসংযোগ বিভাগের উপকমিশনার মাসুদুর রহমান বলেছিলেন, টাকাসহ গ্রেপ্তার নাসিরউদ্দিনের সঙ্গে যোগসূত্র থাকায় মোতালেবকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ঢাকা মহানগর ডিবি গতকাল সোমবার জানায়, জঙ্গি কার্যক্রমে পৃষ্ঠপোষকতার অভিযোগে বন্ধ রাজধানীর লেকহেড গ্রামার স্কুল ঘুষের বিনিময়ে চালু করে দিতে চেয়েছিলেন মোতালেব হোসেন ও নাসিরউদ্দিন। এ জন্য তাঁরা স্কুলটির মালিকের কাছ থেকে ঘুষও নিয়েছিলেন। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।