বুধবার ২৬শে ফেব্রুয়ারি ২০২০ রাত ০২:৫১:০১

Print

ধানের শীষের পক্ষে অভূতপূর্ব গণজোয়ার: মির্জা ফখরুল


নিজস্ব প্রতিবেদক:

প্রকাশিত : মঙ্গলবার ২১শে জানুয়ারী ২০২০ সকাল ১০:৪৩:০১, আপডেট : বুধবার ২৬শে ফেব্রুয়ারি ২০২০ রাত ০২:৫১:০১,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ২০৬ বার

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ধানের শীষের পক্ষে ‘অভূতপূর্ব গণজোয়ার’ দেখতে পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ধানের শীষের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারণায় এসেছি।

এ নির্বাচনে তাবিথ আউয়ালের পক্ষে ঢাকাবাসীর যে গণজোয়ার দেখতে পাচ্ছি তা অভূতপূর্ব। এতে আমরা মনে করি, ভোট ন্যূনতম অবাধ, সুষ্ঠু হলেই তাবিথ আউয়াল বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন। ঢাকার জনগণ এবার বিপুল ভোটে তাবিথ আউয়ালকে বিজয়ী করবেন।

গতকাল সোমবার সকালে মিরপুরের বাইতুল মোশাররফ জামে মসজিদের সামনে তাবিথ আউয়ালকে নিয়ে গণসংযোগ শুরুর আগে এক সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা এ নির্বাচনকে আমাদের দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছি। এ নির্বাচন জনগণকে সম্পৃক্ত করার আন্দোলন হিসেবে আমরা নিয়েছে।

আমরা বিশ্বাস করি, জনগণ যদি সংগঠিত হয়, তাহলে খালেদা জিয়ার মুক্তি, গণতন্ত্রের মুক্তি এবং নগরবাসীর নাগরিক কষ্ট থেকে মুক্তি অনিবার্য। এর জন্য তাবিথ আউয়াল যে কর্মসূচি নিয়েছেন, আমরা মনে করি ঢাকাবাসী তার সঙ্গে একমত হবেন। তাবিথ আউয়ালের ধানের শীষের বিজয় এবার সুনিশ্চিত।

তিনি বলেন, আমরা বিশ্বাস করি, জনগণের উত্তাল তরঙ্গের মধ্যে তাবিথ আউয়ালের ধানের শীষ বিজয়ী হবে, ইনশাআল্লাহ। এ নির্বাচন গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে আরও ত্বরান্বিত করবে।

ভোটের তারিখ পরিবর্তন প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচন কমিশনে যারা দায়িত্ব পালন করছে, তারা সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন করতে পারেনি। তারিখ পরিবর্তনে তারা নিজেদের অযোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছে। কারণ তাদের আগেই দেখা উচিত ছিল সরস্বতী পূজার বিষয়টি। এ নির্বাচন কমিশন অযোগ্য।

জাতীয় নির্বাচনেও একই ঘটনা ঘটিয়েছিল। আমরা মনে করি, নির্বাচনে সব ষড়যন্ত্র, চক্রান্ত উপেক্ষা করে ধানের শীষের বিজয় ছিনিয়ে আনবে ঢাকাবাসী। দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা এ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে জনগণকে সম্পৃক্ত করে গণতান্ত্রিক আন্দোলনের পক্ষে নিয়ে যেতে চাই। আপনারা নিরলসভাবে কাজ করুন।

ইভিএম ভোট চুরির নীরব অস্ত্র- আমীর খসরু

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) হচ্ছে ভোট চুরির উৎকৃষ্ট নীরব অস্ত্র। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। তা না হলে দেশে আর কখনও সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না।

সোমবার সকালে রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির মিলনায়তনে ‘চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপনির্বাচনে ভোটাধিকার বঞ্চিতদের মতবিনিময় সভায়’ তিনি এসব কথা বলেন। আমীর খসরু বলেন, ক্ষমতাসীনরা নির্বাচনী নীতিমালা মানছে না।

ইভিএমের গ্রহণযোগ্যতা কোথায়? চট্টগ্রামে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে যেতে দেয়া হয়নি। কোনো কোনো ভোটার কেন্দ্রে গিয়ে ফিঙ্গার প্রিন্ট দিলেও ভোট দিয়েছে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। তিনি বলেন, চট্টগ্রামে নির্বাচনের কার্যক্রম ভোটের আগ পর্যন্ত সুন্দর ছিল।

কিন্তু ভোটের দিন তাদের কেন্দ্র দখল, বুথ ও ইভিএম দখলের চরিত্র ফুটে উঠেছে। ইভিএমের মাধ্যমে মানুষ ভোটাধিকার প্রয়োগের ক্ষমতা পাচ্ছে না। ইভিএমের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে। সেটাকে বঙ্গোপসাগরে ফেলে দিতে হবে।

চট্টগ্রাম-৮ আসনে বিএনপির প্রার্থী আবু সুফিয়ানের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা কাদের গণি চৌধুরী, চট্টগ্রাম মহানগরের নেতা এমএ আজিজ, ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, সাইফুল ইসলাম প্রমুখ।