বৃহঃস্পতিবার ২৭শে জুন ২০১৯ দুপুর ০২:৩২:৩২

Print Friendly and PDF

সিভিল এভিয়েশনে ১১ ও বিমানে আট ধরনের দুর্নীতি হচ্ছে: দুদক


ডেস্ক রিপোর্ট:

প্রকাশিত : রবিবার ৩রা মার্চ ২০১৯ বিকাল ০৫:০২:২৭, আপডেট : বৃহঃস্পতিবার ২৭শে জুন ২০১৯ দুপুর ০২:৩২:৩২,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬৬৯ বার

সিভিল এভিয়েশন অথরিটিতে ১১ ও বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সে আট ধরনের দুর্নীতি হচ্ছে। দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) অনুসন্ধান ও পর্যবেক্ষণ প্রতিবেদনে এই তথ্য উঠে এসেছে। রবিবার (৩ মার্চ) সচিবালয়ে দুদক কমিশনার ড. মো. মোজাম্মেল হক খান সুপারিশগুলো বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীর কাছে হস্তান্তর করেন।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- মেরামত, রক্ষণাবেক্ষণ, ক্রয় খাত, সম্পত্তি ব্যবস্থাপনা, নির্মাণ, উন্নয়ন কাজ, পরামর্শক নিয়োগ, কর্মী নিয়োগ, পদোন্নতি ও বদলি, বিমানবন্দরের স্পেস, স্টল ও বিলবোর্ড ভাড়াসহ ১১ ধরনের দুর্নীতি হচ্ছে সিভিল এভিয়েশনে।

এছাড়া কেনাকাটা, বিমান লিজ, টিকেট বিক্রি, কার্গো এক্সপোর্ট-ইমপোর্ট, ক্যাটারিং, নিয়োগ ও বদলিসহ আট ধরনের দুর্নীতি হচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সে।

সিভিল এভিয়েশন ও বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের দুর্নীতি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নিতে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়কে ১১টি সুপারিশ পাঠিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের সুপারিশের আলোকে দুর্নীতি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী বলেন, ‘শুধু দুর্নীতি নয়, যারা কাজে অবহেলা করছেন তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।’

দুদক কমিশনার বলেন, ‘দুর্নীতি প্রতিরোধে কোনও বিকল্প নেই। বহির্বিশ্বে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে হলে সম্মিলিতভাবে দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে হবে।’