বৃহঃস্পতিবার ২৩শে মে ২০১৯ রাত ০১:২১:৪৮

Print Friendly and PDF

সেই পোলিং অফিসারের ছবি ভাইরালযার জন্য ভোট পড়ল ৭০ শতাংশ


আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

প্রকাশিত : বুধবার ১৫ই মে ২০১৯ সন্ধ্যা ০৬:১৫:৫৪, আপডেট : বৃহঃস্পতিবার ২৩শে মে ২০১৯ রাত ০১:২১:৪৮,
সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৭২ বার

হলুদ শাড়ি, খোলা চুল, চোখে রোদ চশমা, হাতে ইভিএম বক্স। সম্প্রতি লোকসভা নির্বাচন চলাকালে এমনই একটি ছবি সামনে আসে। এর জেরেই রাতারাতি সোশ্যাল মিডিয়ায় সেনসেশন হয়ে ওঠেন এই লাস্যময়ী।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনের বাক্স হাতে এগিয়ে চলেছেন পোলিং বুথের দিকে। দিন কয়েক হলো, নেটদুনিয়ায় এই লাস্যময়ীর ছবি ভাইরাল। ভোট দিতে অনীহা? এই নারীকে দেখে নাকি সেই অনীহা নিমেষেই দূরে। বরং ‘উনি’ এসেছেন শুনেই সকাল সকাল ভোট দিতে দৌড়েছেন অনেকে। একটাই কথা, যদি একটু দেখা মেলে স্বপ্নে দেখা রাজকন্যার! এখন প্রশ্ন কে এই লাস্যময়ী, যিনি ইভিএম হাতে ভোটের কাজে উত্তর প্রদেশের এক কেন্দ্র থেকে অন্য কেন্দ্রে ছুটে চলেছেন।

হলুদ শাড়িতে কেন্দ্রে হইচই ফেলে দেয়া এই মহিলার নাম রিনা দ্বিবেদি। বয়স যে ৩০ এর কোঠায় কে বলবে! বিবাহিত। শুধু তাই নয়, এক সন্তানের মা-ও রিনা। ৩২ বছর বয়সী এই নারী আসলে উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা। সেই রাজ্যেরই পূর্ত দফতরের কর্মকর্তা পদে নিযুক্ত তিনি।
৫ মে উত্তর প্রদেশের এক ভোট কেন্দ্রের বাইরে রিনাকে দেখা যায় ইভিএম বক্স হাতে নিয়ে ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করতে। এক ফটো সাংবাদিকের ক্যামেরায় ধরা পড়ে সে। ব্যাস, সেই থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল ভোটের কাজে নামা এই সুন্দরী। রাতারাতি তিনি হয়ে যান সোশ্যাল মিডিয়া কুইন।

অনেকে বলছেন, রিনাকে দেখেই নাকি ভোট না দেয়ার জ্বর দূর হয়েছে অনেকের। বরং, বুথের সামনে ভিড় জমিয়েছেন। লাইন দিয়ে নির্বাচন প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করেছেন। বুথের ভিতরে কর্মরত অবস্থায় রিনার ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

রিনার একমাত্র সন্তান অদিত। তার বয়স শুনলেও অবাক হবেন। ১৩ কি ১৪ হবে, নবম শ্রেণিতে পড়ে। রূপে-গুণে, রঙিন শাড়িতে, স্মার্ট কথা বার্তায় আর কঠোর কর্তব্য পরায়ণতায় নেটিজেনদের নজর কেড়েছেন সুন্দরী রিনা। সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন