ঢাকা বুধবার, ২৮শে জুলাই ২০২১, ১৩ই শ্রাবণ ১৪২৮


শিশুদের খাটানো হতো হাসেম ফুড কারখানায়


প্রকাশিত:
১০ জুলাই ২০২১ ১০:৫১

আপডেট:
১০ জুলাই ২০২১ ১৯:৩৭

ছবি-সংগৃহীত

নারায়ণগঞ্জে পুড়ে যাওয়া কারখানায় কাজ করতো বহু শিশু শ্রমিক। আগুন লাগার পরে জীবন নিয়ে বের হতে পারা অনেককে তাড়া করছে সেই দুঃসহ স্মৃতি।

বিভীষিকাময় সেই অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছে শিশু শ্রমিকদের অনেকেই। অগ্নিকান্ডে আটকে পড়া সেই ভয়াবহ মুহূর্তের কথা মনে করে এখনো ডুকরে কেঁদে উঠছেন দুই বোন তামান্না ও তাহমিনা।

শিশু বয়সেই সংসারের হাল ধরতে কাজ করতেন ওই ভবনের চারতলায়। যেখানে কিনা পুড়ে মরেছে অন্তত ৪৯ জন। আগুনের ধোঁয়া টের পেয়ে তারাও বের হতে চেয়েছিলেন বাইরে। কিন্তু কর্তৃপক্ষের মানা, তাই দিশেহারা হয়ে প্রাণ বাঁচাতে ছোটাছুটি।

নিয়তি ছিলো, তাই হয়তো বেঁচে ফিরেছেন এই বয়সে, সাথে নিয়ে মর্মান্তিক অভিজ্ঞতা। লেলিহান আগুনে পুড়ে মরতে দেখেছেন সাথের অনেককেই।

এলাকাবাসী ও হতাহত স্বজনদের অনেকেরই অভিযোগ, এই কারখানায় নিয়মের কোনো বালাই ছিলো না। তাই শিশুদের দিয়েই কাজ করানো হতো, যাদের অনেকেই এখন পুড়ে ছাই।

যদিও কারখানা কর্তৃপক্ষ এ দাবি মানতে নারাজ। তবে শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলছেন, শিশু শ্রমের বিষয়টি সত্য হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে।

এমন একেকটি আগুনের ঘটনায় তদন্ত কমিটি হয়, দোষীও শনাক্ত হয় অনেকেই, কিন্তু ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে যায় অভিযুক্তরা।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top