ঢাকা বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ই আশ্বিন ১৪২৭


সংসদ অধিবেশনের শুরুতেই ২৫ সাংসদ করোনা আক্রান্ত


প্রকাশিত:
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৯:৩৫

আপডেট:
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ ২০:৪১

ফাইল ছবি

করোনাকালে ভারতে পার্লামেন্ট অধিবেশনের শুরুর দিন দেশটির ২৫ এমপির করোনাভাইরাস ধরা পড়ল। সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) ভারতের পার্লামেন্টের অধিবেশন শুরু হয়। এ জন্য পার্লামেন্ট সদস্যদের করোনা পরীক্ষা করতে হয়েছে। সেখান থেকেই ধরা পড়ল ২৫ এমপির করোনা হয়েছে। লোকসভা ও রাজ্যসভা মিলিয়ে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২৫ জন এমপি। এর মধ্যে লোকসভার ১৭ জন এবং রাজ্যসভার আটজন।

আক্রান্তদের মধ্যে ১৪ জন ক্ষমতাসীন বিজেপির এমপি। আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন কংগ্রেস, ওয়াই এসআর কংগ্রেস, শিবসেনা, ডিএমকে, এডিএমকে, আপ, টিআরএস ও তৃণমূল কংগ্রেসের এমপিও। একসঙ্গে এতজন এমপির করোনা হওয়াটা নিঃসন্দেহে বড় ঘটনা। এর আগে পার্লামেন্টের এমপি ও

বিভিন্ন রাজ্যের বিধানসভার বিধায়করাও করোনায় আক্রান্ত হন, মারা গেছেন কয়েকজন রাজনীতিকও। তবে সেই সংখ্যাটা কখনই এই জায়গায় পৌঁছায়নি। অন্যদিকে গত ৬৮ বছরে কখনো এমন ছবি দেখা যায়নি ভারতীয় পার্লামেন্ট লোকসভায়। পাশাপাশি বসা দুই এমপির মাঝে লাগানো হয়েছে পলিকার্বন শিট। প্রত্যেক এমপির দুই পাশের আসন খালি। এভাবেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা হয়েছে। অধিবেশনের আগে সবার করোনা পরীক্ষা হয়েছে। ঢোকার মুখে হাত স্যানিটাইজার দিয়ে জীবাণুমুক্ত করতে হয়েছে। এই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে গিয়ে লোকসভায় অর্ধেক সদস্যই বসতে পারছেন। কিছু এমপি বসছেন দর্শক গ্যালারিতে। কিছু এমপি রাজ্যসভায় এবং রাজ্যসভার দর্শক গ্যালারিতে।

রাজ্যসভার ক্ষেত্রেও একইভাবে রাজ্যসভা, দর্শক গ্যালারি ও লোকসভায় এমপিরা বসছেন। এ জন্য লোকসভা ও রাজ্যসভার অধিবেশন একসঙ্গে বসছে না। আলাদা সময়ে বসছে। সোমবার প্রথমে লোকসভা বসেছে। পরে রাজ্যসভা। তবে প্রথম দিন লোকসভার অনেক এমপিই ছিলেন না। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি উপস্থিত থাকলেও ছিলেন না বিরোধী দল কংগ্রেসের নেত্রী সোনিয়া গান্ধী। ছেলে রাহুল গান্ধীকে নিয়ে চেকআপ করাতে তিনি বিদেশে গেছেন। ফলে তারা কেউই ছিলেন না। রাহুল দিন কয়েকের মধ্যে ফিরবেন বলে কংগ্রেস সূত্রের খবর। তাছাড়া বয়স্ক বেশ কিছু এমপিও অনুপস্থিত ছিলেন।

বিশ্বজুড়ে করোনা আক্রান্তের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ভারত। এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ লাখেরও বেশি মানুষ, এর মধ্যে মারা গেছেন প্রায় ৮০ হাজার। মৃতের তালিকায় বিশ্বে দেশটির অবস্থান তৃতীয়।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top