ঢাকা বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ই আশ্বিন ১৪২৭


বিটরুট খাওয়ার উপকারিতা


প্রকাশিত:
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১১:১১

আপডেট:
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩:২৫

বিটরুট, ফাইল ছবি

বাংলাদেশি সবজি না হলেও এ দেশে সারাবছরই বাজারে বিটরুট পাওয়া যায়। ইতিহাসের দিকে তাকালে দেখা যায় প্রাচীন গ্রিক ও রোমানরা বিভিন্ন রোগের হাত থেকে রেহাই পেতে নিয়মিত বিটরুট খেতেন। প্রাচীনকাল থেকেই বিটরুট বিভিন্নভাবে কাজে এসেছে। কখনও রূপচর্চায়, কখনও রোগনিস্তারে। এখনও সেই রেওয়াজ বন্ধ হয়নি। বিটরুটের বিশেষ কিছু উপকারিতা রয়েছে; যা অনেকেরই অজানা।

বিটরুটের উপকারিতা:

১. বিটরুট ডায়াবেটিস এবং কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণে রাখে।

২. রক্তস্বল্পতা ও আয়রনের ঘাটতি মেটাতে বিটরুট ম্যাজিকের মতো কাজ করে।

৩. অনেক মেয়ের ঋতুচক্র-সংক্রান্ত নানা জটিলতা থাকে। এ ক্ষেত্রে বিটরুট হতে পারে ওষুধ। বিটরুটের জুস করে খেতে পারে। বিটে থাকা আয়রণ নতুন লোহিত রক্তকনিকা তৈরিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে।

৪. গবেষণায় দেখা গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত কোষের হাত থেকে সুস্থ কোষগুলোকে বাঁচাতে বিটরুট খুব উপকারী। কারণ বিটের মধ্যে রয়েছে অ্যান্টি-টিউমার গুণ।

৫. বিট খাওয়ার ফলে ব্রেনে রক্ত চলাচলের ক্ষমতা বেড়ে যায়। যারা নিয়মিত বিট খায়, তাদের চিন্তাভাবনা করার ক্ষমতা অন্যদের তুলনায় অনেকটাই বেশি থাকে।

৬. কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যা অনেকের রয়েছে। এই সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে বেশি করে বিটের জুস খান। বিটরুট বিপাকের সমস্যা দূর করে হজমশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

৭. আপনি জানেন কি? বিটরুটে ট্রিপ্টোফান ও বিটেইন নামে যে উপাদান থাকে, তা ডিপ্রেশন কাটাতে ভালো কাজ দেয়।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top