ঢাকা বুধবার, ২৩শে সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ই আশ্বিন ১৪২৭

টিকটকের বিক্রি চায় না চীন


প্রকাশিত:
১২ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৭:২৭

আপডেট:
২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১১:১৫

ফাইল ছবি

বাইটড্যান্সের উপর চাপ প্রয়োগ করে করে টিকটকের মার্কিন ব্যবসা বিক্রির বিরোধী চীন। দেশটির মন্তব্য হচ্ছে, এভাবে বিক্রি হওয়ার চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বন্ধ হয়ে যাক টিকটক।

ব্যাপারটির সঙ্গে জড়িত তিন সূত্র এ ব্যাপারে শুক্রবার জানিয়েছেন বলে উঠে এসেছে রয়টার্সের প্রতিবেদনে। টিকটকের মার্কিন ব্যবসা বিক্রির জন্য বাইটড্যান্সকে মধ্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প।

এরই মধ্যে টিকটকের ব্যবসা কিনতে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে আলোচনায় বসেছিল মার্কিন প্রতিষ্ঠান মাইক্রোসফট ও ওরাকল। অন্যদিকে, সময়সীমার মধ্যে টিকটক বিক্রি না হলে বাড়তি আর কোনো সময় দেয়া হবে না বলেও সাংবাদিকদের জানিয়েছেন ট্রাম্প। তার ভাষ্যে, “হয় এটি বিক্রি হবে, না হয় বন্ধ হয়ে যাবে”।

পুরো ব্যাপারটি নিয়েই নাখোশ বেইজিং। চীনা কর্মকর্তারা মনে করছেন, এভাবে ওয়াশিংটনের চাপের মুখে টিকটক বিক্রি হলে তা বাইটড্যান্স ও চীনের দুর্বল চেহারাই প্রকাশ করবে। সম্প্রতি স্পর্শকাতর এ বিষয়ে জানিয়েছেন নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সূত্র।

বাইটড্যান্স এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, চীন কখনও তাদেরকে যুক্তরাষ্ট্রের বা অন্য কোনো বাজারের টিকটক ব্যবসা বন্ধ করার পরামর্শ দেয়নি। তবে, বিষয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দুই সূত্র জানিয়েছেন, বাইটড্যান্সের কোনো চুক্তিতে পৌঁছানো ঠেকাতে নিজেদের অগাস্টের ২৮ তারিখে তৈরি প্রযুক্তি রপ্তানী তালিকা পুনর্বিবেচনা করতেও রাজি চীন।

চীনের স্টেট কাউন্সিল ইনফরমেশন সিস্টেম এবং পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় তাৎক্ষণিকভাবে মন্তব্যের অনুরোধে সাড়া দেয়নি। তবে, শুক্রবারে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান জানিয়েছেন, রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তা উদ্বেগের দোহাই দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র হয়রানি করছে। তিনি ওই সময়ে বিদেশী প্রতিষ্ঠানকে শোষণ থামানোর আহবানও জানান।


ছোট আকারের ভিডিও ক্লিপ তৈরি করে তা শেয়ার করা যায় টিকটকের মাধ্যমে। মার্কিন কিশোর বয়সীদের মধ্যে অ্যাপটি বেশ জনপ্রিয়। কিন্তু নিজ দেশের ব্যবহারকারীদের টিকটক ডেটার গোপনতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন মার্কিন কর্তাব্যক্তিরা। তাদের দাবি, চীন চাইলেই মার্কিন ব্যবহারকারীদের ডেটা দিয়ে দিতে হবে টিকটককে।

এ অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছে টিকটক। প্রতিষ্ঠানটি একাধিকবার বলেছে, তাদের কাছে কোনো ডেটা চায়নি চীন, ভবিষ্যতে চাইলেও তারা দেবে না।

কিন্তু মন গলেনি মার্কিন কর্তাব্যক্তিদের। দুটি নির্বাহী আদেশে স্বাক্ষর করে টিকটকের মার্কিন ব্যবসা গুটানোর বন্দোবস্ত করে দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প।

এ মাসের শুরুতে মোট চারটি পন্থায় বাইটড্যান্সের কাছ থেকে টিকটক কেনার ব্যাপারে আলোচনা করেছে সম্ভাব্য ক্রেতারা। এমনকি মূল সফটওয়্যার বাদ রেখে শুধু টিকটকের মার্কিন ব্যবসা কেনার কথাও উঠে এসেছিল আলোচনায়।

বৃহস্পতিবারের এক প্রতিবেদনে উঠে এসেছিল, নতুন চীনা নীতিমালার কারণে চুক্তির আলোচনায় জটিলতা তৈরি হয়েছে, সম্ভবত নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে প্রতিষ্ঠানটি চুক্তি সম্পন্ন করতে পারবে না।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top