ঢাকা বুধবার, ২৮শে জুলাই ২০২১, ১৩ই শ্রাবণ ১৪২৮

সূর্যগ্রহণ হবে আজ


প্রকাশিত:
২১ জুন ২০২০ ১০:৩৮

আপডেট:
২১ জুন ২০২০ ১২:১৩

ছবি: সংগৃহীত

আজ ২১ জুন রোববার কর্কটক্রান্তি দিবস বা বছরের দীর্ঘতম দিন। এই দীর্ঘতম দিনে বিশ্বের বহু দেশ থেকে দেখা মিলবে 'রিং অব ফায়ার' বা আগুনের বৃত্ত বা বলয় সদৃশ সূর্যগ্রহণের। তবে দুপুরে বাংলাদেশ থেকে দেখা যাবে আংশিক সূর্যগ্রহণ। বাংলাদেশের সব জেলা থেকেই দেখা যাবে এই গ্রহণ।

বাংলাদেশে এ গ্রহণ শুরু হবে সকাল ১১টা ২৩ মিনিটে। সর্বোচ্চ গ্রহণ দেখা যাবে দুপুর ১টা ১২ মিনিটে। আর গ্রহণ শেষ হবে ২টা ১৪ মিনিটে। প্রায় একই সময়ে দেশের অন্য বিভাগীয় শহরগুলোতে এ গ্রহণ দেখা যাবে। তবে মিনিটের হিসাবে কিছুটা কমবেশি হবে। যদিও এ সময়টায় দেশের কয়েকটি অঞ্চলে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন থাকার কথা জানিয়েছে আবহাওয়া অফিস।

যখন দিনের বেলায় সূর্য আর পৃথিবীর মাঝখানে চাঁদ এসে পড়ে, তখন সূর্যগ্রহণ হয়। আপনারা মাঝেমধ্যে নিশ্চয়ই দেখেছেন, বিকেলবেলা চাঁদ আকাশে দেখা যায়। তবে পূর্ণিমার কাছাকাছি সময় না হলে দিনের বেলায় চাঁদ দেখার তেমন একটা সুযোগ হয় না। এই চাঁদ যখন সূর্যের সামনে চলে আসে, তখন সূর্য থেকে পৃথিবীতে আলো আসতে বাধা পায় এবং সূর্যের বেশ খানিকটা অংশ ঢেকে যায়। কখনো কখনো সূর্যের পূর্ণ অংশও ঢেকে যায়, তখন সেটাকে বলে পূর্ণগ্রহণ। কিন্তু যদি চাঁদ সূর্যের একটা অংশকে শুধু ঢেকে দেয়, তখন সেটাকে বলে আংশিক গ্রহণ।

রোববার ঠিক এমনই একটা আংশিক গ্রহণ দেখা যাবে বাংলাদেশ থেকেও। বিশ্বের অনেক দেশে বলয়গ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখা গেলেও বাংলাদেশ থেকে শুধু আংশিক গ্রহণ দেখা যাবে। আর বাংলাদেশ থেকে পরবর্তী সূর্যগ্রহণ দেখা যাবে ২০২২ সালের ২৫ অক্টোবর।

টাইম অ্যান্ড ডেট ডট কমের হিসাবমতে, বাংলাদেশে রোববার বেলা ১১টা ২৬ মিনিটে শুরু হয়ে সূর্যগ্রহণ চলবে বেলা ২টা ৫২ মিনিট পর্যন্ত। ঢকায় সূর্যের সবচেয়ে বেশি অংশ ঢেকে যাবে বেলা ১টা ১২ মিনিটে। দেশের অন্যান্য অঞ্চল থেকে কাছাকাছি সময়েই দেখা যাবে।

সূর্যগ্রহণ খালি চোখে দেখা অত্যন্ত ক্ষতিকর। এক্স-রে ফিল্ম, নেগেটিভ, ভিডিও-অডিও ক্যাসেটের ফিতা, সানগ্লাস, ঘোলা বা রঙিন কাচেও এসব ক্ষতিকর অতিবেগুনি ও অবলোহিত রশ্মি আটকায় না। তাই কোনোভাবেই এগুলো দিয়ে সূর্যগ্রহণ পর্যবেক্ষণ করা যাবে না।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top