ঢাকা বুধবার, ২৩শে জুন ২০২১, ৯ই আষাঢ় ১৪২৮


করোনাভাইরাসকে হারালেন ১০৭ বছরের ডাচ নারী


প্রকাশিত:
১৩ এপ্রিল ২০২০ ১৭:২০

আপডেট:
২৩ জুন ২০২১ ১২:১৩

১০৭ বছর বয়সের কর্নেলিয়া রাস

করোনাভাইরাসের বিষাক্ত ছোবেল যখন গোটা বিশ্বে কাঁপছে, তখন প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করে জয়ী হলেন ১০৭ বছর বয়সের এক নারী। কিছু দিন আগে ১০৩ বছরের এক মহিলার করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার খবর পাওয়া গিয়েছিল। এবার তাঁর থেকেও চার বছরের বড় এক মহিলা করোনাকে হারিয়ে দিলেন।

তারপর ৯৯ বছরের রিটা রেনল্ডস ইংল্যান্ডের সব থেকে প্রবীণ হিসেবে করোনাভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন। এ ছাড়াও ইতালির আমলা ক্লারা কোরসিনি নামে ৯৫ বছরের এক মহিলা ৫ মার্চ হাসাপাতলে ভর্তি হন। পরীক্ষায় তাঁর করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। তিন সপ্তাহেরও কম সময়ে তিনি করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠেন।

এবার তাঁদের সবার রেকর্ড ভেঙে দিলেন এক ডাচ মহিলা। কর্নেলিয়া রাস সম্প্রতি ১০৭তম জন্মদিন পার করেন। পরের দিনই তিনি অসুস্থ হয়ে নেদারল্যান্ডসের এক নার্সিংহোমে ভর্তি হন। পরীক্ষায় তাঁর করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ে। ডাচ সংবাদমাধ্যম জানায়, ওই দিন ন্যাদারল্যান্ডসের একটি চার্চের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন কর্নেলিয়া। তার সাথে অংশগ্রহণকারী আরও ৪০ জন করোনায় আক্রান্ত হন। এ পর্যন্ত আক্রান্ত ৪০ সদস্যের ১২ জনই মারা গেছেন।

কর্নেলিয়ার এক স্বজন গণমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাতকারে জানান, আমরা আশাই করিনি তিনি বেঁচে যাবেন। এর আগে করোনায় আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন যুক্তরাষ্ট্রের ১০৪ বছর বয়সী এক বৃদ্ধা।

নার্সিংহোমে চিকিৎসা চলতে থাকে রাসের। প্রায় আড়াই সপ্তাহে তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হতে শুরু করে। পরে চিকিৎসকরা জানান তিনি করোনাভাইরাস মুক্ত। এখনও পর্যন্ত গোটা বিশ্ব থেকে যে খবরগুলি সামনে এসেছে, তাদের মধ্যে এই মহিলাই সব থেকে বেশি বয়সে করোনাভাইরাস থেকে সেরে উঠলেন বলে জানা গিয়েছে।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top